Breaking News

E Porcha/ ই পর্চা খতিয়ান, ই পর্চা আবেদন- www.eporcha.gov.bd যেকোনো খতিয়ান দেখতে ভিজিট করুন

E Porcha/ ই পর্চা খতিয়ান, ই পর্চা আবেদন- www.eporcha.gov.bd যেকোনো খতিয়ান দেখতে ভিজিট করুন এই ওয়েবসাইটে এই বিষয় নিয়ে আজকের এই আর্টিকেলটি সাজানো হয়েছে। সুতরাং আপনারা যারা অনলাইনের মাধ্যমে ইন্টারনেটে খতিয়ান অনুসন্ধান, ই পর্চা লগইন, অনলাইন ই পর্চা,ই খতিয়ান যাচাই, ভূমি পর্চা ও ই পর্চা ডি আর আর সিস্টেম খোঁজ করতেছেন তাদেরকে আমাদের এই নিবন্ধনে স্বাগতম জানাই।

বর্তমান সময়ে এই বাংলাদেশ তথ্য প্রযুক্তিতে অন্য দেশের সাথে তালে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে দ্রুত গতিতে। আর এরই ধারাবাহিকতায় ভূমি সেবায় যার ফলস্বরূপ প্রতিফলিত হয়েছে। সহজেই ভূমি সেবা জনগণের নিকট পৌঁছাতে বাংলাদেশ ভূমি মন্ত্রণালয় ই পর্চা (www.eporcha.gov.bd) ওয়েবসাইটটির উদ্বোধন করেন। আর এই ওয়েবসাইটি ব্যবহার করে সর্বস্তরের জনগণ ভূমি সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য পেয়ে যাবে।

বাংলাদেশের যে হারে দিন দিন জনসংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে তার তুলনায় বাংলাদেশের ভূমির পরিমাণ অর্থাৎ আবাদি জমির পরিমাণ খুবই কমে যাচ্ছে। এক সময় দেখা যাবে যে, মানুষের এত চাপের কারণে বাংলাদেশে অন্যান্য দেশের তুলনায় ঘনবসতিপূর্ণ দেশে পরিণত হবে। আর তাই এই ভূমির চাহিদা এত পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে যে, উপজেলা পর্যায়ে থানা কিংবা জেলা পর্যায়ে কোর্ট কিংবা হাইকোর্ট গুলোতে দেখা যায় ভূমি সংক্রান্ত মামলা বেশি হয়ে থাকে। আর তা নিরূপণের জন্য যাতে করে মামলার নিষ্পত্তি হয় তারে ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ ভূমি মন্ত্রণালয় কর্তৃক www.eporcha.gov.bd উক্ত ওয়েব সাইটের নিখুঁতভাবে পরিচালনা করে আসছেন।

ভূমি সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য জানার জন্য অন্যের দ্বারস্থ হতে হয়। কিংবা দালালের খপ্পরে পড়তে হয়। আর এতে করে দেখা যায় যে, অর্থ শ্রম ও সময় ব্যয় হয়। তাই নিজেকে দালালের খপ্পর থেকে রেহাই করার জন্য চোখ কান খোলা রেখে ভূমি সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্যগুলো নিজে জানতে হবে এবং অপরকে জানানোর চেষ্টা করতে হবে।

আপনার কাছে যদি একটি কম্পিউটার কিংবা স্মার্ট ফোন থাকে এবং তার সাথে যদি ইন্টারনেট কানেকশন যুক্ত থাকে তাহলে আপনারা ভূমি সেবা খুব সহজে গ্রহণ করতে পারবেন কোনরকম দালালের খবর কিংবা মধ্যস্থতা প্রয়োজন নেই বললেই চলে। সিএসই,এসএ, আর এস সহজে কোন খতিয়ান আপনারা সার্টিফাইড কপির জন্য আবেদন করা যাবে নিম্নাক্ত ওয়েবসাইটে। আর বিনামূল্যে খুব সহজেই এমনকি তাৎক্ষণিকভাবে খতিয়ানের অনলাইন কপি নিতে পারবেন এই ওয়েবসাইট ব্যবহার করে।

আপনারা যদি কোন খতিয়ান যাচাই করতে চান কিংবা এর মালিক কে তা যাচাই করতে চান, কোন প্রকার টাকা ছাড়াই খুব সহজেই এমনকি তাৎক্ষণিকভাবে যাচাই করতে পারবেন www.eporcha.gov.bd এই ওয়েবসাইটটি ব্যবহার করে। খতিয়ান নং, দাগ নং জমির মালিকের নাম ও মালিকের পিতার নাম দিয়ে সার্চ করলে যে কোন খতিয়ান আপনারা খুব সহজেই দেখতে পারবেন। আর খতিয়ান গুলোর মধ্যে থাকছে আরএস খতিয়ান, সিএস খতিয়ান, বিএস খতিয়ান, এস এ খতিয়ান ইত্যাদি।

E Porcha/ ই পর্চা কি? | E Porcha/ ই পর্চা খতিয়ান, ই পর্চা আবেদন- www.eporcha.gov.bd যেকোনো খতিয়ান দেখতে ভিজিট করুন

আপনারা অনেকেই জানতে চেয়েছেন যে, E Porcha/ ই পর্চা কি? আর এই বিষয়ে জানানোর জন্যই আজকের এই পোস্টটি আয়োজন করা হয়েছে। অনেকেই এই সেবা গ্রহণ করে থাকলেও এখন পর্যন্ত অনেক ব্যক্তি রয়েছেন যারা ই সেবার বিষয় জানেনই না। ই সেবা অর্থাৎ অনলাইন ভিত্তিক যে সেবা গুলো পাওয়া যায় তার মধ্যে অন্যতম একটি সেবা হচ্ছে E Porcha/ ই পর্চা। আপনার হয়তোবা ভূমি সংক্রান্ত কিংবা জমি সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য জানার জন্য আমাদের এই ওয়েবসাইটে এসেছেন। আর এক্ষেত্রে আপনারা এখান থেকে বিস্তারিত তথ্য জেনে নিতে পারবেন কোনোরকম চিন্তাভাবনা ছাড়াই।

E Porcha/ ই পর্চা মূলত এমন একটি সেবা যার মাধ্যমে ভূমি সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য আপনারা জেনে নিতে পারবেন কোনরকম ঝামেলা ছাড়াই। এখান থেকে আপনারা বিভিন্ন খতিয়ান গুলো ডাউনলোড করে নিতে পারবেন তার মধ্যে অন্যতম খতিয়ান গুলো হচ্ছে আরএস খতিয়ান, সিএস খতিয়ান, বিএস খতিয়ান এমনকি জমি গুলো কারো নামে আছে এর মালিককেনা তাও জানতে পারবেন এই www.eporcha.gov.bd ওয়েবসাইটটি ব্যবহার করে। প্রথমদিকে এই সেবার জনপ্রিয়তা খুবই কম ছিল বলেই বিবেচিত। আর বর্তমান সময়ে তথ্যপ্রযুক্তিতে দেশ আরো উন্নত হওয়ার কারণে উক্ত ওয়েবসাইটের ভ্যালু অর্থাৎ মানুষের কাছে জনপ্রিয়তা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।www.eporcha.gov.bd আরে তুই বাংলাদেশ ভূমি মন্ত্রণালয় কর্তৃক একটু অনলাইন ভিত্তিক সেবা আর অনেকেই এটিকে ডিজিটাল সেবা বলে জেনে থাকেন।

E Porcha/ ই পর্চার সুবিধা? | E Porcha/ ই পর্চা খতিয়ান, ই পর্চা আবেদন- www.eporcha.gov.bd যেকোনো খতিয়ান দেখতে ভিজিট করুন

আপনারা নিশ্চয়ই E Porcha/ ই পর্চা সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য সম্পর্কে জানতে এসেছেন। আর আমরা যথাসাধ্য চেষ্টা করব E Porcha/ ই পর্চার সুবিধা সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য জানিয়ে দেওয়ার জন্য।

ভূমি সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য জানার জন্য E Porcha/ ই পর্চার সুবিধা সমূহ সম্পর্কে জানা অত্যন্ত জরুরি ব্যাপার। আমরা যেমন তথ্য প্রযুক্তির ছোঁয়ায় দূর কে করতে পারছি অনেক নিকটবর্তী তেমনি বিভিন্ন নিত্য প্রয়োজনীয় কাজ খুব সহজেই অর্থের সাশ্রয় ঘটিয়ে সমাধান করা যাচ্ছে নিমিষেই। আমরা ডিজিটাল সেবাগুলো গ্রহণ করার মাধ্যমে জটিল ও জটিলতার থেকে কঠিন কাজগুলো অনেক সহজ করে দিয়েছে।

সুতরাং এই সেবা সমূহ গুলো সম্পর্কে জানার মাধ্যমে আমরা একদিকে যেমন লাভবান হচ্ছি অন্যদিকে সময় এবং শ্রম খুবই সাশ্রয় হচ্ছে। বর্তমান সময়ে যে হারে জনসংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি বাসে শেয়ারে ভূমির পরিমাণ খুবই কম। বিশাল এই মানুষের খাদ্যের চাহিদা মেটাতে। আমাদের আবাদি জমিতে বিশাল পরিবর্তন এসেছে। বিশেষ করে দেখা যায় যে বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চলগুলোতে বছরে তিন থেকে চার বার আবাদ হচ্ছে। আর যা সম্ভব হয়েছে এই তথ্য প্রযুক্তির আদলে।

জমি সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য গুলো জানার জন্য অনেকেই দালালের খপ্পরে পড়ে সময় এবং শ্রমকে অনেক ব্যয় করতেছে। আর সেদিন আর বেশি দূরে নয় অর্থাৎ বর্তমান সময়ে দালালের হাত থেকে নিজেকে রেহাই এবং জমি সংক্রান্ত তথ্য নিজেরাই নিজেই জেনে নিতে পারবেন। বাংলাদেশ ভূমি মন্ত্রণালয় কর্তৃক www.eporcha.gov.bd এই ওয়েবসাইটটি পরিচালনা করে আসেন। আরে ওয়েবসাইটটি ব্যবহার করি জমির মালিকানা ও  খতিয়ান বের করা যায় খুব সহজেই।

এছাড়াও আমরা www.eporcha.gov.bd এই ওয়েবসাইটি ব্যবহার করে জমির খতিয়ান নাম্বার, জমির দাগ নাম্বার, জমির আসল মালিকের নাম, বিএস খতিয়ান, সিএস খতিয়ান, ও আর এস খতিয়ান ইত্যাদি বিষয় সম্পর্কে জানা যায়। আর এই সেবার একটি গুরুত্বপূর্ণ ও মজার ব্যাপার হচ্ছে যে, জমির মালিকের নাম, জমির মালিকের পিতার নাম দিয়ে খুব সহজেই জমির মালিকানা নির্ণয় করা যায়। বর্তমান সময়ের ওয়েবসাইটের গুরুত্ব এবং জনপ্রিয়তা বেড়েই চলছে। আমাদের এই পোস্টটি যদি আপনারা মনোযোগ সহকারে পড়েন তাহলে আরো বিস্তারিত তথ্য সম্পর্কে জানতে পারবেন ধন্যবাদ।

E Porcha/ ই পর্চা | E Porcha/ ই পর্চা খতিয়ান, ই পর্চা আবেদন- www.eporcha.gov.bd যেকোনো খতিয়ান দেখতে ভিজিট করুন

E Porcha/ ই পর্চা কি বিষয়টি সম্পর্কে হয়তো বা অনেকেই জানেন না। আর আমরা বিস্তারিত তথ্য আপনাদের জানিয়ে দেবো E Porcha/ ই পর্চা সম্পর্কে। আজকের এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনারা জানতে পারবেন কিভাবে E Porcha/ ই পর্চার জন্য আবেদন করবেন। বিষয়টি সম্পর্কে যদি আপনাদের সঠিক জ্ঞান থেকে থাকে তাহলে আপনারা পরবর্তী কোন ঝামেলার সম্মুখীন হবেন না। খুব সহজেই আপনারা জমি সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য জেনে নিতে পারবেন। জমি সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য জানার জন্য www.eporcha.gov.bd এই ওয়েবসাইট সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে হবে। তাই চলুন অপেক্ষা কেন এখনি শুরু করা যাক মূল বিষয় সম্পর্কে।

অনলাইন E Porcha/ ই পর্চা | E Porcha/ ই পর্চা খতিয়ান, ই পর্চা আবেদন- www.eporcha.gov.bd যেকোনো খতিয়ান দেখতে ভিজিট করুন

অনলাইনে E Porcha/ ই পর্চার বিষয়ে অনেকেই হয়তোবা অবগত নন। আর এই বিশাল সেবা থেকেই আপনি যদি বঞ্চিত হয়ে থাকেন তাহলে অনলাইন E Porcha/ ই পর্চা সম্পর্কে বিশদ জ্ঞান রাখতে হবে।

বাংলাদেশ তথ্য প্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে দ্রুতগতিতে। পূর্বের সময় ভূমি সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য জানার জন্য মাসের পর মাস অপেক্ষা করতে হতো। আরেকদিকে অর্থ, শ্রম এবং সময়ের প্রচুর ব্যয় হতো। আমরা হয়তোবা অনেকেই জানি না যে কিংবা জানার চেষ্টা করি না বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক বিভিন্ন অনলাইন ভিত্তিক সেবা রয়েছে সেসব বিষয় সম্পর্কেই।

তবে বছরের বেশিরভাগ সময়ই জমি সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য জানার জন্য আপনারা অনলাইনের মাধ্যমে খোঁজ করে থাকেন। আপনি যদি নতুন হয়ে থাকেন অর্থাৎ অনলাইন E Porcha/ ই পর্চা সম্পর্কে যদি কোন ধারণা না থাকে। তাহলে আজকের এই পোস্টটি শুধু আপনারই জন্য। আপনি পোস্টটি স্কিপ না করি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ুন এবং বিস্তারিত জেনে নিন।

খতিয়ান কত প্রকার? খতিয়ান বা E Porcha/ ই পর্চা কত প্রকার? | E Porcha/ ই পর্চা খতিয়ান, ই পর্চা আবেদন- www.eporcha.gov.bd যেকোনো খতিয়ান দেখতে ভিজিট করুন

অনেকেই এখন পর্যন্ত জানে না যে খতিয়ান বা E Porcha/ ই পর্চা কত প্রকার? ও কি কি? আর এক্ষেত্রে যদি আপনারা এই বিষয়ে সম্পর্কে জানতে চান তাহলে আপনারদের জন্য তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। খতিয়ান সম্পর্কে বিশদ জ্ঞান থাকা জরুরী ব্যাপার। বিভিন্ন সময় জমি সংক্রান্ত বিভিন্ন প্রয়োজনে খতিয়ানের প্রয়োজন পড়ে থাকে। তাই খতিয়ান সম্পর্কে সংক্ষেপে আলোচনা করা হয়েছে আমাদের এই পোস্টে। পোস্টে জমি সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য আপনাদের জানিয়ে দেওয়া হবে। তাই আমাদের এই পোস্টটি স্কিপ না করে মনোযোগ সহকারে পড়ার অনুরোধ রইল।

সাধারণত খতিয়ান বা E Porcha/ ই পর্চা চার প্রকার

  1. সিএস খতিয়ান। (Cadastral Survey)

2. এসএ খতিয়ান । (State Acquisition Survey)

3. আরএস খতিয়ান। (Revisional Survey)

4. বিএস খতিয়ান/সিটি জরিপ। (City Survey)

খতিয়ান নাম্বার কি? | E Porcha/ ই পর্চা খতিয়ান, ই পর্চা আবেদন- www.eporcha.gov.bd যেকোনো খতিয়ান দেখতে ভিজিট করুন

জমি সংক্রান্ত অনেক বিষয় সম্পর্কে জালেও এখনো অনেক ব্যক্তি জানেনা যে খতিয়ান নাম্বার কি? আর এ বিষয়ে সম্পর্কে জানার জন্য অন্য ব্যক্তিকে লজ্জা শরমের ভয়ে কাউকে বলতে চায় না। আর আপনি যদি সেই ব্যক্তিটি হয়ে থাকেন তাহলে বিস্তারিত তথ্য জেনে নিন।

খতিয়ান নাম্বার কি কিংবা এর কাজ কি এ বিষয়ে সম্পর্কে জানার জন্য প্রয়োজনীয়তা রয়েছে এক্ষেত্রে আমরা বিষয়টি আপনাদের মাঝে বিস্তারিত উল্লেখ করছি। খতিয়ান নাম্বার মূলত জমি সংক্রান্ত খাতা গুলোকে আলাদাভাবে চিহ্নিত করার জন্য প্রতিটি খাতার ওপর একটি সংখ্যা বরাদ্দ থাকে সেদিকে শুধুমাত্র দ্রুত চিহ্নিত করার কাজে ব্যবহার করা হয়।

সর্বোপরি বিষয়টি সহজ করে বলা যায় যে, খতিয়ান নাম্বার হচ্ছে যে, প্রয়োজনীয় খাতাগুলোকে দ্রুত চিহ্নিত করার জন্য খাতা গুলোর উপর অঙ্কিত সংখ্যা মাত্র। আর এর কাজ হচ্ছে প্রয়োজনীয় সময়ে দ্রুত খাতাকে চিহ্নিত করার জন্য উত্তম পন্থা। আরো অনেকেই এই ছোট বিষয়টি সম্পর্কে না জেনে বড় বিষয় ভেবে মনে ভয়ের সংশয় স্থাপন করে। আর তাই বিষয়টি সম্পর্কে আপনাকে জানাতে পেরে আমরা খুবই গর্বিত মনে করছি। আরো বিস্তারিত তথ্যের জন্য পুরো পোষ্টটি পড়ার অনুরোধ রইল ধন্যবাদ।

E Porcha/ ই পর্চা অনলাইন আবেদন | E Porcha/ ই পর্চা খতিয়ান, ই পর্চা আবেদন- www.eporcha.gov.bd যেকোনো খতিয়ান দেখতে ভিজিট করুন

আমরা এই পর্যায়ে আপনাদের সাথে শেয়ার করতে যাব কিভাবে আপনারা অনলাইনের মাধ্যমে E Porcha/ ই পর্চার জন্য আবেদন করবেন সে বিষয় সম্পর্কে। অনেকেই রয়েছেন যারা অনলাইনে আবেদন প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানেন না কিংবা জানার কোন ইচ্ছা পোষণ করেন না। আর আপনাদেরকে জানানোর জন্যই আমরা এই পর্যায়ে E Porcha/ ই পর্চা অনলাইন আবেদন সম্পর্কে জানিয়ে দেব। জমি সংক্রান্ত বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানা গুরুত্বপূর্ণ এবং জ্ঞান রাখা জরুরি ব্যাপার। অনলাইনে আবেদনের জন্য নিচের দেওয়া লিংকে ক্লিক করুন link

E Porcha/ ই পর্চা খতিয়ান (Eporcha Gov Bd Khation) | E Porcha/ ই পর্চা খতিয়ান, ই পর্চা আবেদন- www.eporcha.gov.bd যেকোনো খতিয়ান দেখতে ভিজিট করুন

E Porcha/ ই পর্চা সম্পর্কে বিশদ ধারণা ইতিমধ্যেই পেয়ে গেছেন। আর এই বিষয়টি সম্পর্কে যদি আপনাদের আরো কোন জানতে ইচ্ছা থেকে থাকে তাহলে আপনারা নিজেরাই তা জেনে নিতে পারবেন। আমরা এই পোষ্টের মাধ্যমে E Porcha/ ই পর্চা সংক্রান্ত বিভিন্ন ছোট বড় তত্ত্ব আপনাদের জানিয়ে দিয়েছি। আপনাদের আরো বিশদ ধারণার প্রয়োজন আছে তাও আমরা এই পোষ্টের মাধ্যমে জানিয়ে দেব। আমরা যেহেতু পূর্বেই E Porcha/ ই পর্চা সম্পর্কে জেনেছি আর তাই এখন খতিয়ান সম্পর্কে জানব।

জমি সংক্রান্ত বিভিন্ন কাগজগুলোকে অর্থাৎ গুরুত্বপূর্ণ পেপার্স গুলোকে আলাদাভাবে চিহ্নিত করার জন্য প্রতিটি লেজারে অন্যান্য সংখ্যা বরাদ্দ করা হয়ে থাকে এটি শুধুমাত্র চিহ্নিত করার জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে আর এর কাজগুলো খুবই সহজ হয়। আর চিহ্নিত করার জন্য যে সংখ্যাগুলো ব্যবহার করা হয় যার মাধ্যমে আমরা খুব সহজেই একটি খতিয়ান কে চিহ্নিত করতে পারি। চিহ্নিত করার জন্য যে নাম্বারগুলো বরাদ্দ করা হয় সেটিকে খতিয়ান নাম্বার বলা হয়ে থাকে সুতরাং আপনারা ই পর্চা ও খতিয়ান নাম্বার কি সে সম্পর্কে অবশ্যই জানতে পেরেছেন বলে আশাবাদী ধন্যবাদ।

Eporcha Gov Bd Login | E Porcha/ ই পর্চা খতিয়ান, ই পর্চা আবেদন- www.eporcha.gov.bd যেকোনো খতিয়ান দেখতে ভিজিট করুন

E Porcha/ ই পর্চার অফিসিয়াল ওয়েবসাইট তথা বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক পরিচালিত ভূমি মন্ত্রণালয়ের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে আমরা বিভিন্ন ধরনের সুবিধা সমূহ পেয়ে থাকি। আর ভূমি সংক্রান্ত বিভিন্ন সুবিধা পাওয়ার জন্য উক্ত সাইটে লগইন করার প্রয়োজন রয়েছে। এ ছাড়াও খতিয়ান বা E Porcha/ ই পর্চা সম্পর্কে জানার জন্য এই সাইটে লগইন করার প্রয়োজন রয়েছে।

আমরা এই পোষ্টের শেষে আপনারা কিভাবে Eporcha Gov Bd Login তে লগইন করবেন সে বিষয় সম্পর্কে জানিয়ে দেবো। আপনারা স্মার্টফোনটি ব্যবহার করে লগইন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে পারবেন। এক্ষেত্রে প্রয়োজন হবে আপনার একটি মোবাইল নম্বর এবং লগইন পাসওয়ার্ড দিয়ে এই ওয়েবসাইটে লগইন করে নিতে পারবেন। তবে লগইন পাসওয়ার্ড মনে রাখার চেষ্টা করবেন। আর যদি কোনক্রমে লগইন পাসওয়ার্ড ভুলে যান তাহলে কোন ধরনের চিন্তা করবেন না। লগইন পেজের নিচে ইমেইলের মাধ্যমে খুব সহজেই পাসওয়ার্ডটি চেঞ্জ করে নিতে পারবেন। আমরা আশাবাদী যে উক্ত বিষয়টি সম্পর্কে আপনারা বিস্তারিত জানতে পেরেছেন ধন্যবাদ।

সুতরাং মোবাইল নাম্বার ও পাসওয়ার্ড মনে রাখতে চেষ্টা করবেন এক্ষেত্রে কোন প্রকার সমস্যা হবে না বলে জানানো যাচ্ছে। লগ ইন পেজের মাধ্যমে আপনাদের মোবাইল নাম্বার ও পাসওয়ার্ড চাপাবে যার উপরে নাগরিক অপশন থাকবে। আর সেখানে মোবাইল নম্বর ও পাসওয়ার্ডটি দিয়ে লগইন করে নিতে পারবেন। কোনক্রমে যদি লগইন পাসওয়ার্ডটি ভুলে যান তাহলে পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন এই অপশনে ক্লিক করুন। ইমেইল ব্যবহার করে কিংবা মোবাইল নম্বরটি ব্যবহার করে খুব সহজেই পাসওয়ার্ডটি ফিরে নিতে পারবেন। আরো বিস্তারিত জানতে কিংবা কোন প্রকার ঝামেলার সম্মুখীন হলে কমেন্ট বক্সের মাধ্যমে আমাদের জানিয়ে দেবেন আমরা ইনশাআল্লাহ চেষ্টা করব আপনাদের সঠিক তথ্য দিয়ে বিষয়টি জানানোর ধন্যবাদ।

E Porcha ই পর্চা খতিয়ান, ই পর্চা আবেদন- www.eporcha.gov.bd যেকোনো খতিয়ান দেখতে ভিজিট করুন

আমরা আপনাদের জানানোর সুবিধার্থে উক্ত পেজের লগইন সিস্টেমটি ছবির মাধ্যমে উপস্থাপন করছি। আপনারা নিম্নত লিংকে ক্লিক করে খুব সহজেই লগইন করে নিতে পারবেন ধন্যবাদ।

ভূমি পর্চা | E Porcha/ ই পর্চা খতিয়ান, ই পর্চা আবেদন- www.eporcha.gov.bd যেকোনো খতিয়ান দেখতে ভিজিট করুন

উপর তো আলোচনার মাধ্যমে আমরা ই পর্চা সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্য জানতে সক্ষম হয়েছি। কেউ রয়েছে যারা এটিকে ভূমি পর্চা হিসাবে জানে। আবার কেউ কেউ রয়েছে যারা ই পর্চা সম্পর্কে জানে। আপনাদের জানা কখনোই ভুল হতে পারে না। আপনারা এটি কে ভূমি পর্চা কিংবা মাঠ পর্চা কিংবা ই পর্চা ইত্যাদি নামে চিহ্নিত করতে পারেন। আর এই সহজ বিষয়টিকে বোঝার জন্য অনেকেই নানা রকম গন্ডগোল করে থাকে। আর আমরা খুব সহজেই আপনাদের বিষয়টি সম্পর্কে জানিয়ে দিলাম। আরো বিস্তারিত তথ্য জানার জন্য পুরো আর্টিকেলটি আপনাকে মনোযোগ সহকারে পড়ার অনুরোধ রইল ধন্যবাদ।

ভূমি সেবার হটলাইন নাম্বার | E Porcha/ ই পর্চা খতিয়ান, ই পর্চা আবেদন- www.eporcha.gov.bd যেকোনো খতিয়ান দেখতে ভিজিট করুন

জমি সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্যের জন্য জানার জন্য অন্যের দ্বারস্থ হতে হবে না। হাতে থাকে স্মার্টফোনটির মাধ্যমে কিংবা মুঠোফোনটির মাধ্যমে আপনারা খুব সহজেই ভূমিসেবা হট লাইন নম্বরে যোগাযোগ করে বিভিন্ন সমস্যার সংক্রান্ত তথ্য জেনে নিতে পারবেন। আর এতে করে দেখা যাবে যে একদিকে আপনাদের সময় এবং অর্থে সাশ্রয় হবে এবং হয়রানি থেকে রেহাই পাবেন। ভূমি সেবার জন্য যে হট লাইনটি বরাদ্দ করা হয়েছে তা সংরক্ষণ করুন ১৬১২২

অনলাইনে জমির মালিকানা যাচাই প্রক্রিয়া ২০২৩ | E Porcha/ ই পর্চা খতিয়ান, ই পর্চা আবেদন- www.eporcha.gov.bd যেকোনো খতিয়ান দেখতে ভিজিট করুন

অনলাইনে জমির মালিকানা যাচাই করার জন্য আপনাকে এই পোস্টটি পড়তে হবে। সুতরাং আপনার যারা অনলাইনে জমির মালিকানা সম্পর্কে আমাদের পোস্টে জানতে এসেছেন তারা নিশ্চয়ই উপকৃত হবেন। আর আমরা আপনাদের সুবিধার্থে বিস্তারিত তথ্য এই প্রশ্নের মাধ্যমে তুলে ধরার চেষ্টা করব ইনশাল্লাহ। যারা অনলাইনে জমির মালিকানা যাচাই প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ প্রক্রিয়াটি জানতে চান তারা আমাদের পোস্টটি স্কিপ না করে মনোযোগ সহকারে পড়ুন। আমরা আশা করি যে আপনারা এখান থেকে উপকৃত হবেন। বাংলাদেশকে আরো উন্নত এবং সমৃদ্ধশালী করার জন্য বাংলাদেশ সরকার জননেত্রী শেখ হাসিনা অনলাইনের ওপর অধিক গুরুত্ব আরোপ করেছেন।

আর এক্ষেত্রে ভূমি মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে আপনি জমির মালিকানা খুঁজে বের করতে পারবেন খুবই সহজ উপায়ে। সেখান থেকে আপনারা একটি আবেদন চাওয়া হবে সেই আবেদনটি ফিলাপ করে কনফার্ম করলে আপনি জানতে পারবেন। তবে আপনাকে সঠিক তথ্যগুলো দিয়ে ফর্মটি ফিলাপ করতে হবে। অন্যথায় আপনি জমির মালিকানা নির্ধারণ করতে পারবেন না। আর মালিক না দেখতে আমাদের পোস্টটি পড়ুন ধন্যবাদ।

অনলাইনে যে কোন খতিয়ান দেখুন | E Porcha/ ই পর্চা খতিয়ান, ই পর্চা আবেদন- www.eporcha.gov.bd যেকোনো খতিয়ান দেখতে ভিজিট করুন

যারা অনলাইন এর মাধ্যমে খতিয়ান সম্পর্কে কিংবা খতিয়ান বের করতে চাচ্ছেন তারা আমাদের এই পোস্টটি মানুষের সহকারে পড়ুন। তাহলে এখান থেকে আপনারা বিষয়গুলি সম্পর্কে জেনে নিতে পারবেন। জমি ক্রয় বিক্রয় সহ সকল ক্ষেত্রে মানুষ বর্তমানে অনেক সচেতন। কারণ বর্তমান সময়ে জমির চাহিদা এতে পরিমাণ বেড়ে গেছে যে যা বলার বাইরে। আর বিভিন্ন থানাগুলোতে কিংবা গ্রাম্য পর্যায় আদালত গুলোতে দেখা যায় জমি সংক্রান্ত বিভিন্ন মামলা।

অনলাইনে যে কোন খতিয়ান বের করার জন্য আপনাকে আমাদের এই প্রতিটি পদক্ষেপ ভালো করে বুঝে তারপর ফর্মটি ফিলাপ করতে যাবেন। তাহলে চলুন দেখে নেওয়া যাক:-

 

E Porcha ই পর্চা খতিয়ান, ই পর্চা আবেদন- www.eporcha.gov.bd যেকোনো খতিয়ান দেখতে ভিজিট করুন

খতিয়ান অনলাইনে আবেদন এর জন্য আপনাকে link ক্লিক করতে হবে।

ওপরের ছবির মত একটি ইন্টারফেস আপনাদের সামনে প্রদর্শিত হবে। এখানে যেসব তথ্যগুলো আপনারা দিবেন সেসব তথ্য নিয়ে আপনাদের জানিয়ে দেব। আর তাই চলুন অপেক্ষা কেন এখনই জেনে নিন।

বিভাগ: আপনার নিজের বিভাগ টি সিলেক্ট করুন। কিংবা লিখে সার্চ করুন চলে আসবে। বিভাগ সঠিকভাবে প্রদান করুন ধন্যবাদ।

জেলা: আপনি যে বিভাগের আওতাধীন জেলায় বসবাস করছেন। সেই জেলাটি আপনাকে এখানে সিলেক্টেড করতে হবে। আর সঠিক জেলাটি দিয়ে আপনারা উক্ত ড্যাশবোর্ড পূরণ করুন ধন্যবাদ।

খতিয়ান টাইপ নির্বাচন করুন: আপনার খতিয়ান টি অর্থাৎ আপনি কোন খতিয়ান অনলাইনে আবেদন করার জন্য জানতে চাচ্ছেন সেটি সিলেক্টেড করুন। এখানে বিএস, সিএস, b rs,এস এ, পেটি, দিয়ারা ও নামজারি।

উপজেলা নির্বাচন করুন: আপনি যে বিভাগের, যে জেলার, যে উপজেলায় বসবাস করে থাকেন তা সিলেক্টেড করুন। তবে উপজেলাটি আপনারা সঠিকভাবে দিবেন নতুবা কোন তথ্য পাবেন না।

মৌজা: আপনি এখানে মৌজা দিয়ে ঘরটি পূরণ করুন ধন্যবাদ।

খতিয়ান নং: আপনার খতিয়ানের নাম্বার কত তা এখানে সিলেক্টেড করুন।

দাগ নং: আপনারা এখানে দাগ নং দিয়ে ড্যাশবোর্ড পূরণ করুন।

মালিকানা নাম: মালিকের নাম যদি উল্লেখ থাকে তাহলে এখানে মেনশন করুন।

পিতা/ স্বামীর নাম: পিতা/ স্বামীর নাম নাম থাকলে তা এখানে নির্বাচন করুন।

ক্যাপচা কোড লিখুন: এখানে উল্লেখিত যে ক্যাপসা করতে রয়েছে তা দিয়ে এখানে পূরণ করুন তবে সঠিক তথ্য দিতে হবে ধন্যবাদ।

পরিশেষে অনুসন্ধান করুন এই বাসনে ক্লিক করুন এবং আপনার খতিয়ানটি অনলাইনের মাধ্যমে যাচাই করতে পারবেন ধন্যবাদ।

দাগ নম্বর দিয়ে জমির মালিকের নাম যাচাই | E Porcha/ ই পর্চা খতিয়ান, ই পর্চা আবেদন- www.eporcha.gov.bd যেকোনো খতিয়ান দেখতে ভিজিট করুন

দাগ নম্বর দিয়ে জমির মালিকের নাম যাচাই হ্যাঁ কথাটি সত্যি। অনেকেই শুধুমাত্র দাগ নাম্বার জেনে থাকেন আড়াই দাগ দিয়ে অনুসন্ধান করেন জমির মালিকের নাম সম্পর্কে জানার জন্য। এ বিষয়টি সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে এবং এখানে আমাদের সাথে থেকে আপনি আপনার প্রয়োজনীয় তথ্যটি সংগ্রহ করে নিতে পারবেন আমরা এটা আশাবাদী। তবে একটি বিশেষ ব্যাপার খেয়াল রাখবেন ফর্মে উল্লেখিত তথ্য গুলো সঠিকভাবে প্রদান করবেন। এবং যেসব তথ্য আপনারা উল্লেখ করবেন সেসব তথ্য মনে রাখবেন অন্যথায় আপনাকে তথ্য দেখানো হবে না।

ই পর্চা সার্টিফাইড কপি সংগ্রহ করুন | E Porcha/ ই পর্চা খতিয়ান, ই পর্চা আবেদন- www.eporcha.gov.bd যেকোনো খতিয়ান দেখতে ভিজিট করুন

আপনি কি জানেন বাড়িতে বসেই ই পর্চা সার্টিফাইড কপি সংগ্রহ করা সম্ভব। আপনি যদি বাড়িতে বসেই ই পর্চা সার্টিফাইড কপি সংগ্রহ করতে চান তাহলে আপনাকে এই পোস্টটি পড়তে হবে। সার্টিফাইড কপিগুলো আপনি নিজেই উত্তোলন করতে ব্যর্থ হলে কিংবা সময়ের অভাবেই নিজেই তুলা না হলে ডাক যোগাযোগের মাধ্যমে কথা বলে আপনারা সার্টিফাইড কপি বাড়িতে বসেই উত্তোলন করতে সক্ষম হতে পারবেন। আরো অনেকেই এই বিষয়টি নিয়ে অনেক চিন্তিত হয়ে থাকে। আশা করি বিষয়টি আপনারা বুঝতে পেরেছেন। আরো বিস্তারিত তথ্য জানতে আমাদের পুরো পোস্টটি পড়ুন ধন্যবাদ।

ই পর্চা ডাউনলোড সিস্টেম | E Porcha/ ই পর্চা খতিয়ান, ই পর্চা আবেদন- www.eporcha.gov.bd যেকোনো খতিয়ান দেখতে ভিজিট করুন

অনেকেই রয়েছে যারা ই পর্চার ডাউনলোড সম্পর্কে জানতে চায়। দেশে কিংবা দেশের বাহিরে বসে থেকে নিজের ই পর্চার ডাউনলোড কপি সংগ্রহ করবে সে বিষয় নিয়ে চিন্তিত রয়েছেন। বর্তমানে অনলাইনে সব কিছু করা সম্ভব। আপনি যদি চান অনলাইনের মাধ্যমে ই পর্চা ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

অনেকেই এই সুবিধা সম্পর্কে অবগত নন। আপনারা কিভাবে ঘরে বসেই কিংবা দেশে থেকে কিংবা দেশের বাইরে থেকেই ই পর্চা কপি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন সে বিষয়ে সম্পর্কে জানতে চাইলে আমাদের পুরো পোস্টটি পড়ুন তাহলে বিষয়টি জানতে পারবেন।

যেহেতু এটি অনলাইন ভিত্তিক একটি সেবা। আপনি চাইলে যেখানে যে অবস্থায় থাকেন না কেন যদি সেখানে ইন্টারনেট কানেকশন থাকে তাহলেই খুব সহজেই ই পর্চার কপিটি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। আপনারা খুব সহজেই ই পর্চার www.eporsha.gov.com ওয়েবসাইট থেকে ই পর্চা কপিটি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

ই পর্চা ও ডি আর আর সিস্টেম | E Porcha/ ই পর্চা খতিয়ান, ই পর্চা আবেদন- www.eporcha.gov.bd যেকোনো খতিয়ান দেখতে ভিজিট করুন

ই পর্চা ও ডি আর আর সিস্টেম সম্পর্কে জানতে চাইলে আমাদের পুরো পোস্টটি তাহলে মনোযোগ সহকারে পড়ুন। এক্ষেত্রে একটি বিষয় আপনাদের মাঝে প্রকাশের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে বলে জানানো যাচ্ছে খতিয়ান অনলাইন কপি দিয়ে আপনি জমির মালিকানা যাচাইয়ের পাশাপাশি ব্যবহারিক কাজ করে নিতে পারবেন। সুতরাং খতিয়ানের কপি অর্থাৎ খতিয়ান থেকে কিছু তথ্য সংগ্রহ করে শেষ তথ্য দিয়ে আপনি জমির মালিকানা যাচাই করতে পারবেন। এক্ষেত্রে একটা বিষয় বলে রাখা ভালো যে, আদালতের বিষয়ে আসলে আপনাকে অবশ্যই খতিয়ানের সার্টিফাইড কপির প্রয়োজন পড়বে।
www.eporsha.gov.com

কিছু প্রশ্নের উত্তর জেনে নিন

জমির পর্চা বের করতে কত টাকা লাগে?

বর্তমানে যে কেউ ইউডিসি ও পিডিসির উদ্যোক্তাদের (যিনি পর্চার আবেদন সম্পন্ন করেন) তার মাধ্যমে আবেদন করতে পারেন। এবং অনলাইনে এর আবেদন ফ্রি ১০০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

ই পর্চা বলতে কি বুঝায়?

তথ্য প্রযুক্তির যুগে কম্পিউটার কিংবা স্মার্টফোন ব্যবহার করে জমি জায়গার খতিয়ান সংক্রান্ত বিভিন্ন যাবতীয় তথ্য যেমন ভ্যালিডিটি দেখা, আসল মালিক কে?, খতিয়ান ডাউনলোড, নবায়ন, কপি ডাউনলোড ইত্যাদি সেবা গ্রহণ করাকে ই পর্চা বলে।

কিভাবে পাবেন অনলাইনে ভুমির আরএস খতিয়ান?

অনলাইনে জমির খতিয়ান ওঠার জন্য ভূমি মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে গিয়ে আপনাকে লগইন করে নিতে হবে। আর এখানে খতিয়ান নাম্বার বের করে তা ডাউনলোড করে নিতে হবে। পরিশেষে আপনাকে তার পিন করে আউট করার মাধ্যমে হাতে পেয়ে যাবেন আর এস খতিয়ান অনলাইন কপি। আর খতিয়ান তোলার পূর্বেই আপনাকে উপজেলা ভূমি অফিসে যোগাযোগ করতে হবে।

আর এস খতিয়ান কত সালে হয়?

এই জরিপে প্রস্তুতকৃত নকশা ম্যাপ এবং খতিয়ান নির্ভুল হিসেবে গ্রহণীয় করা হয়েছে। বিএস জরিপ হলো মূলত বাংলাদেশের সার্ভারের সংক্ষিপ্ত রূপ। ১৯৫০ সালের জমিদারি অধিগ্রহণ ও প্রজাস্ত আইন অনুযায়ী এই জরিপের কার্য চালিত হয়। ১৯৯৮ সালতে বর্তমান চলমান জরিপ কে বিএস খতিয়ান বা সিটি খতিয়ান বলা হয়।

খতিয়ান নাম্বার কি?

খতিয়ান নাম্বার হলো একটি জমি বা সম্পত্তির সম্পূর্ণ নতির নিবন্ধন সংক্রান্ত তথ্য। বেটি রাজ্য সরকার কর্তৃক জমির মালিকের জারি করা জমির রেকর্ডের একটি নির্ধারিত নাম।

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *