Breaking News

ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩, ভাড়ার তালিকা ও অগ্রিম টিকিট বুকিং সিস্টেম | Dhaka to Chattagram Train Schedule 2023

ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩, ভাড়ার তালিকা ও অগ্রিম টিকিট বুকিং সিস্টেম | Dhaka to Chattagram Train Schedule 2023 এ বিষয় নিয়ে আজকের এই আর্টিকেলটি মূলত লেখা হয়েছে। সম্মানিত ভ্রমণ পিপাসু ভাই ও বোনেরা আপনারা যারা বিভিন্ন কাজে কিংবা ভ্রমণের উদ্দেশ্যে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে যেতে চাচ্ছেন। আজকের এই আর্টিকেলে স্বাগতম জানাই। কারণ আজকের এই আর্টিকেলটি আপনাদের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ হতে চলছে।

আপনারা অনেকেই জানতে চেয়েছেন ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম ট্রেনের সময়সূচি ও ভাড়া ২০২৩, ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের দূরত্ব কত, বিরতি স্থানের নাম ইত্যাদি বিষয় সম্পর্কে। আর আপনাদের দেওয়া প্রতিটি প্রশ্ন আমরা এখানে নোট করে সুন্দরভাবে তা উপস্থাপন করার চেষ্টা করছি। আজকের এই আর্টিকেলটি পাঠ করার মাধ্যমে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম রুটে ট্রেনের যাতায়াতে কোনরকম ঝামেলা পোহাতে হবে না।

আমরা সকলেই জানি আর যারা জানিনা জেনে নেই বাংলাদেশের ব্যস্ততম রেলপথ বা রেলরুট যদি বলতে হয় তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম। আর এই ব্যস্ততম রুটে যদি চলাচল করতে চান তাহলে আপনার জন্য কয়েকটি ট্রেনে যাতায়াতের অপশন রয়েছে। আপনি চাইলে আপনার সুবিধা অনুযায়ী আপনার যখন সময় হবে সে সময় অনুযায়ী ট্রেনে যাত্রা পরিকল্পনা করতে পারেন। আর এই জন্য আপনাকে ট্রেনের সঠিক সময়সূচী সম্পর্কে জানতে হবে। আরো যে ব্যাপারটি আপনাকে জানতে হবে তা হচ্ছে ট্রেনের টিকিটের মূল্য অর্থাৎ ভাড়ার তালিকা সম্পর্কে।

ট্রেনে কেন ভ্রমণ করবেন?

অনেকেরই মনে এই প্রশ্নটি জাগে যে কেন প্রেমে ভ্রমণ করা খুবই নিরাপদ এবং আনন্দদায়ক ও মজাদার হবে। সত্যিকার অর্থে ট্রেনের যাত্রা খুবই নিরাপদ। ট্রেন মূলত কোনরকম সমস্যা কিংবা স্টেশন ব্যতীত সচারচার কোথাও থামেনা। ট্রেন মূলত অবিরাম ভাবে ছুটে চলে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায়।

ট্রেনের মধ্যে আপনারা সব ধরনের ফ্যাসিলিটি পেয়ে যাবেন। যেমন ধরেন: নামাজ কালামের ব্যবস্থা, এসি কিংবা নন এসি সিট বা রুমের ব্যবস্থা, খানাপিনার ব্যবস্থা এমনকি ওয়াশরুমের ব্যবস্থা পর্যন্ত আপনারা ট্রেনের মধ্যে পেয়ে যাবেন। আপনি যদি চান যে আমি এসি রুমে কিংবা নন এসি রুমে শুয়ে কিংবা বসে ভ্রমণ করতে চাই তাও আপনারা সে বিষয়টি পেয়ে যাবেন।

একঘামি শহরের জীবনে বসবাস করে অনেকেরই জীবন অতিষ্ঠ হয়ে যায়। আর আপনি চাইলে কোথাও সুন্দর একটি প্লেস দেখে ভ্রমণ করতে পারেন। আর সেই ভ্রমণটি যদি ট্রেনের মধ্যে হয় তাহলে তো কোন কথাই নয়। সত্যিকার অর্থে ট্রেনের মধ্যে ভ্রমণ করলে নিজের মন প্রফুল্ল থাকে। কারণটা হচ্ছে যে, ট্রেন মূলত গ্রামীণ পরিবেশে হাইওয়ে রোড থেকে অনেক দূরে আকাবাকা মেঠো পথ ধরে যাত্রী চলাচলে ব্যস্ত থাকে। কেউ যদি চায় ট্রেনের মধ্যে বসে থেকে খুব কাছ থেকে গ্রামীণ পরিবেশকে উপভোগ করার। আর সে চাইলেও কিন্তু সেটা সম্ভব। একটা বিষয় লক্ষ্য দিলেন বুঝতে পারবেন সব বয়সের মানুষজনই ট্রেনে যাত্রা কি ভালবাসি এবং পছন্দ বোধ করে এবং নিরাপদ ভ্রমণ মনে করে।

অন্যান্য যানবাহনের তুলনায় ট্রেনের যাত্রা পথে ভাড়ার যে পরিমাণ তা খুবই কম। আপনার লক্ষ্য দিলে দেখতে পারবেন যে, বাস, মাইক্রোবাস ইত্যাদি যানবাহনের তুলনায় ট্রেনের ভাড়া খুবই কম। আর তাইতো বলা চলে যে, সব ধরনের মানুষজনই ট্রেনের মধ্যে ভ্রমণ করার অধিকার রাখে।

ট্রেন যেমন দ্রুতগামী তেমনি অর্থের দিক থেকে আপনারা অনেক সেভিং করতে পারছেন। একদিকে যেমন আপনার অর্ধে সাশ্রয় হচ্ছে অন্যদিকে আপনাদের সময়েরও কিন্তু সাশ্রয় হচ্ছে। আর তাই আপনারা যদি ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম রুটে কোন বিশেষ কারণে কিংবা বিভিন্ন পর্যটন এলাকা ভ্রমণ করার উদ্দেশ্যে যেতে চান তাহলে আমরা আপনাকে সাজেস্ট করব ট্রেনের মধ্যে যাতায়াতের জন্য।

আজকের এই আর্টিকেলটি মূলত যারা ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম রুটে চলাচল করতে চাচ্ছেন কিংবা চট্টগ্রাম থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে চলাচল করতে চাচ্ছেন তাদেরই জন্য। কারণ আমরা আপনাদের জানিয়ে দেবো ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩ সম্পর্কে এমনকি ট্রেনের ভাড়ার তালিকায়ও সম্পর্কে আপনাদের জানিয়ে দেবো। ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম রুটে যে সকল ট্রেন চলাচল করে তার তালিকা আমরা এখানে লিপিবদ্ধ করছি। আপনারা চাইলে যদি আপনাদের কোন প্রয়োজন হয় তাহলে পুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। আপনি কি অগ্রিম ধন্যবাদ জানিয়ে আমাদের মূল বিষয় শুরু করা যাক।

ঢাকা টু চট্টগ্রাম ট্রেনের সময়সূচী (আন্তঃনগর)

ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম রোডের মোট দূরত্ব হচ্ছে ২৪৫ কিলোমিটার। ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম রুটে বেশ কয়েকটি অন্তনগর ট্রেন চলাচল করে। আর আপনারা সকলেই জানেন যে, আন্তঃনগর ট্রেন গুলো মেইল এক্সপ্রেস ট্রেনের তুলনায় অনেক দ্রুতগামী। খুবই স্বল্প সময়ের মধ্যে এক স্থান থেকে অন্য স্থানে নিয়ে যায় অনায়াসেই। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম রোটে যে সকল ট্রেন চলাচল করে সে সকল ট্রেনের নাম সম্পর্কে।

১. সুবর্ণা এক্সপ্রেস (৭০২)
২. মহানগর প্রভাতী (৭০৪)
৩. মহানগর এক্সপ্রেস (৭২২)
৪.তূর্ণা এক্সপ্রেস (৭৪২)
৫. সোনার বাংলা এক্সপ্রেস(৭৮৮)

ট্রেনের নাম ট্রেনের ধরন ট্রেন নাম্বার উৎস স্থল প্রস্থানের সময়কাল গন্তব্য স্থল আগমনের সময়কাল সাপ্তাহিক বন্ধের দিন
সুবর্ণ এক্সপ্রেস অতঃ নগর ট্রেন (৭০২) ঢাকা কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন ১৬ঃ৪৭  চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন ২১ঃ৫০ সোমবার
মহানগর প্রভাতী অতঃ নগর ট্রেন (৭০৪) ঢাকা কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন ০৭ঃ৪৫ চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন ১৪ঃ০০ নাই
মহানগর এক্সপ্রেস অতঃ নগর ট্রেন (৭২২) ঢাকা কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন ২১ঃ২০ চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন ০৪ঃ৫০ রবিবার
তূর্ণা এক্সপ্রেস অতঃ নগর ট্রেন (৭৪২) ঢাকা কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন ২৩ঃ৩০ চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন ০৬ঃ২০ নাই
সোনার বাংলা এক্সপ্রেস অতঃ নগর ট্রেন (৭৮৮) ঢাকা কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন ০৭ঃ০০ চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন ১২ঃ৪৫ বুধবার

সুবর্ণা এক্সপ্রেস (৭০২)

সুবর্ণা এক্সপ্রেস ট্রেনটি হচ্ছে একটি অন্তনগর ট্রেন। আর এই ট্রেনের মাধ্যমে আপনারা ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম এর উদ্দেশ্যে যেতে পারবেন। আর এই ট্রেনটির সাপ্তাহিক বন্ধের দিন ঘোষণা করা হয়েছে সোমবার। ঢাকা থেকে ট্রেনটি ছাড়বে ১৬:৪৭ মিনিটে চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশনে পৌঁছাবে ট্রেনটি ২১:৫০ মিনিটে।

মহানগর প্রভাতী (৭০৪)

মহানগর এক্সপ্রেস ট্রেনটি হচ্ছে একটি আন্তঃনগর ট্রেন। আরে ট্রেন এর মাধ্যমে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে ভ্রমণ করতে পারবেন। আর এই ট্রেনের সাপ্তাহিক কোন বন্ধের দিন ঘোষণা করা হয়নি। সপ্তাহে সাত দিনে ই যাত্রী পরিষেবা দিয়ে যাবে অবিরাম ভাবে। আর এই ট্রেনটি ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে ছাড়বে ০৭:৪৫ মিনিটে। আর চট্টগ্রাম রেলস্টেশনে গিয়ে পৌঁছাবে ১৪:০০ মিনিটে।

মহানগর এক্সপ্রেস ট্রেন (৭২২)

মহানগর এক্সপ্রেস ট্রেনটি হচ্ছে একটি অন্তনগর ট্রেন। আপনারা সকলেই অবগত রয়েছেন যে,
রয়েছে অন্ত নগর ট্রেন গুলো খুবই দ্রুতগামী। আরে ট্রেন ব্যবহার করে আপনারা ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে যেতে পারবেন। আরে ট্রেনটির সাপ্তাহিক বন্ধের দিন ঘোষণা করা হয়েছে রবিবার। ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে ট্রেনটি ছাড়বে ২১:২০ মিনিটে। অপরদিকে ট্রেনটি চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশনে পৌঁছাবে ০৪:৫০ মিনিটে।

তূর্ণা এক্সপ্রেস ট্রেন (৭৪২)

তূর্ণা এক্সপ্রেস ট্রেনটি হচ্ছে একটি অন্তনগর ট্রেন। তূর্ণা এক্সপ্রেস ট্রেনটির সাপ্তাহিক কোন বন্ধের দিন ঘোষণা করা হয়নি। সপ্তাহের সাত দিনে ই যাত্রী পরিষেবা দিয়ে যাবে অবিরাম ভাবে। আর এই ট্রেনটি ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে রওনা হবে ২৩:৩০ মিনিটে। অপরদিকে ট্রেনটি চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশনে গিয়ে পৌঁছাবে ০৬:২০ মিনিটে।

সোনার বাংলা এক্সপ্রেস ট্রেন (৭৮৮)

সোনার বাংলা এক্সপ্রেস ট্রেনটি হচ্ছে একটি অন্তনগর ট্রেন। আর আপনারা জানেন এই যে আন্তঃনগর ট্রেনগুলো খুবই দ্রুতগামী এবং খুব স্বল্প সময়ের মধ্যে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় যাত্রী পরিষেবা দিয়ে যাচ্ছে নিরাপদ ভাবে। আর এই ট্রেনটির সাপ্তাহিক বন্ধের দিন ঘোষণা করা হয়েছে বুধবার। ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে ট্রেনটি রওনা হবে ০৭:০০ মিনিটে। অপরদিকে, চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশনে গিয়ে পৌঁছাবে ১২:১৫ মিনিটে।

ঢাকা টু চট্টগ্রাম ট্রেনের সময়সূচী (মেইল এক্সপ্রেস ট্রেন)

অন্তঃনগর ট্রেনের তুলনায় মিল এক্সপ্রেস ট্রেন গুলো একটু কম দ্রুত চলাচল করে থাকে। যাত্রীদের সবচেয়ে সেরা এবং পছন্দের চয়েজ হচ্ছে যে আন্তঃনগর এক্সপ্রেস ট্রেনগুলো। মনোক্রমে যদি আপনাদের আন্তঃনগর ট্রেনগুলো সিট বুকিং দিতে সমস্যা হয়ে যায় তাহলে আপনারা মেইল এক্সপ্রেস ট্রেন গুলো আপনাদের পছন্দের তালিকা রাখতে পারেন। ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম রুটি যে মেইল এক্সপ্রেস ট্রেন গুলো চলাচল করে তা হল:

১. চট্টগ্রাম মেইল (০২)
২. কর্ণফুলী এক্সপ্রেস (০৪)
৩. চট্টলা এক্সপ্রেস (৬৪)

ট্রেনের নাম ট্রেনের ধরন ট্রেন নাম্বার উৎস স্থল প্রস্থানের সময়কাল গন্তব্য স্থল আগমনের সময়কাল সাপ্তাহিক বন্ধের দিন
চট্টগ্রাম মেইল  মেইল  (০২) ঢাকা কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন ২২ঃ৩০  চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন ০৭ঃ২৫ নাই
কর্ণফুলী এক্সপ্রেস  মেইল  (০৪) ঢাকা কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন ০৮ঃ৩০ চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন ১৮ঃ০০ নাই
চট্টলা এক্সপ্রেস  মেইল  (৬৪) ঢাকা কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন ১৩ঃ০০ চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন ২০ঃ৫০ মঙ্গলবার

চট্টগ্রাম মেইল (০২)

চট্টগ্রাম মেইল এক্সপ্রেস ট্রেনটি হচ্ছে একটি মেইল এক্সপ্রেস ট্রেন। আর‌ এই ট্রেনের সাপ্তাহিক কোন বন্ধের দিন ঘোষণা করা হয়নি। আর এই ট্রেনটি ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে রওনা হবে ২২:৩০ মিনিটে। আর ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে গিয়ে পৌঁছাবে ০৭:২৫ মিনিটে।

কর্ণফুলী এক্সপ্রেস ট্রেন (০৪)

কর্ণফুলী এক্সপ্রেস ট্রেনটি হচ্ছে মেইল এক্সপ্রেস ট্রেন। আর এই ট্রেনটির সাথে কোন বন্ধের দিন ঘোষণা করা হয়নি। কর্ণফুলী এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম এর উদ্দেশ্যে রওনা হবে ০৮:৩০ মিনিটে। অপরদিকে, চট্টগ্রামে গিয়ে পৌঁছাবে ১৮:০০ মিনিটে।

চট্টলা এক্সপ্রেস ট্রেন (৬৪)

চট্টলা এক্সপ্রেস ট্রেনটি হচ্ছে একটি মেইল এক্সপ্রেস ট্রেন। আর এই ট্রেনটির সাপ্তাহিক বন্ধের দিন ঘোষণা করা হয়েছে। আর সাপ্তাহিক বন্ধের দিনটি হচ্ছে মঙ্গলবার। এই ট্রেনটি ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে রওনা হবে ১৩:০০ মিনিটে। অপরদিকে চট্টগ্রামে গিয়ে পৌঁছাবে ২০:৫০ মিনিটে।

ঢাকা টু চট্টগ্রাম ট্রেনের ভাড়ার তালিকা

সম্মানিত ভ্রমণ পিপাসু ভাই ও বোনেরা চলুন জেনে নেওয়া যাক ঢাকা থেকেই চট্টগ্রাম রুটে যে সকল ট্রেন চলাচল করে। সেসকল ট্রেনের সিট অনুযায়ী ভাড়ার তালিকা আমরা নিচে সুন্দরভাবে লিপিবদ্ধ করছি।

আসনের নাম আসন অনুযায়ী টিকিটের মূল্য
এসি ব্যর্থ ১১৭৯ টাকা
এস সিট ৭৮৮ টাকা

 

স্নিগ্ধা ৬৫৬ টাকা
প্রথম ব্যর্থ ৬৮৫ টাকা
প্রথম সিট ৪৬০ টাকা
শোভন চেয়ার ৩৪৫ টাকা
শোভন ২৮৫ টাকা

ওপরে উল্লেখিত টেবিলের ভাড়া কম বা বেশি হতে পারে। আর ভাড়া তালিকা কম বেশি সম্পূর্ণ নির্ধারণ করতেছে কর্তৃপক্ষের ওপর। ওয়েবসাইটে উল্লেখিত ভাড়ার তালিকা সাথে যদি তাদের ট্রেনের ভাড়া তালিকা গুলো না মিলে থাকে তাহলে আমাদের ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। যথাসম্ভব চেষ্টা করব আপনাদের আপডেট তথ্য তুলে ধরার জন্য ধন্যবাদ।

ঢাকা টু চট্টগ্রাম ট্রেনের রুট ম্যাপ

ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম ট্রেনের মাধ্যমে যাতা করতে হলে আপনাকে অপ্রত কোন স্টেশনে নামতে চান তার দিক নির্দেশনা পেতে চাইলে বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃক প্রকাশিত ব্যবহার করুন। আর নিচে আমরা ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম ট্রেনের রুট ম্যাপ সরবরাহ করছি তা দেখে নিন।

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *